in

মোদি-মমতা বৈঠক, আলোচনা হলো যা নিয়ে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বিধানসভা নির্বাচনে জয়ের পর প্রথমবারের মতো ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে বৈঠক করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আজ মঙ্গলবার দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকারি বাসভবনে বৈঠক করেন তিনি। মোদির সঙ্গে এই বৈঠককে ‘সৌজন্য সাক্ষাৎ’ বলে উল্লেখ করেছেন মমতা। বৈঠকে পশ্চিমবঙ্গের কোভিড পরিস্থিতি, ভ্যাকসিন ও ওষুধ সরবরাহ নিয়ে আলোচনা হয়। এছাড়া, পশ্চিমবঙ্গের নাম পরিবর্তন করে ‘বাংলা’ করতে ভারত সরকারের অনুমোদন দেওয়ার বিষয়েও বৈঠকে আলাপ করেছেন মমতা।

তৃণমূল কংগ্রেস ২০১৬ সাল থেকে পশ্চিমবঙ্গের নাম পরিবর্তন করে ‘বাংলা’ নামকরণের দাবি জানিয়ে আসছে। বিধানসভায় এই প্রস্তাব দুবার পাস হলেও কেন্দ্রীয় সরকার এখনও এটিকে অনুমোদন দেয়নি।

২০ মিনিটের ওই বৈঠক শুরুর আগে মমতা সাংবাদিকদের জানান, পেগাসাস স্পাইওয়্যার ইস্যু নিয়ে আলোচনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর সর্বদলীয় বৈঠক আহ্বান করা উচিত এবং সুপ্রিম কোর্টের তত্ত্বাবধানে কেন্দ্র এর তদন্ত করবে কিনা সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত।

ইসরায়েলের স্পাইওয়্যার পেগাসাসের ফাঁস হওয়া সম্ভাব্য তালিকায় ভারতের বিরোধী নেতা, দুই ফেডারেল মন্ত্রী ও ৪০ সাংবাদিকসহ ৩০০ জনের নাম উঠে আসায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কাছ থেকে জবাব চাইছেন বিরোধীরা।

গতকাল পেগাসাস কেলেঙ্কারি নিয়ে বিজেপি সরকারের উপর চাপ বাড়াতে ‘প্রথম রাজ্য’ হিসেবে এ ইস্যু নিয়ে নিজস্ব তদন্ত কমিশন গঠন করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। পশ্চিমবঙ্গের কয়েকজন নেতাদের ফোনে আড়িপাতার বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে। এর একদিন পর, আজ মঙ্গলবার শীর্ষ আদালতের তত্ত্বাবধানে বিষয়টি তদন্তের আহ্বান জানালেন মমতা বন্দোপাধ্যায়।

বৈঠকে আলোচিত বিষয়ে নরেন্দ্র মোদির প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে জানতে চাইলে মমতা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী কী বলেছেন সেসব নিয়ে আমার কথা বলা উচিত নয়।’

আগামীকাল ২০২৪ সালের সাধারণ নির্বাচনে মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপির বিরুদ্ধে ঐক্য গড়ে তোলার বিষয়ে কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী, শরদ পাওয়ার, অখিলেশ যাদব ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে দেখা করবেন মমতা বন্দোপাধ্যায়।

অনলাইনে খুব সহজে টাকা ইনকাম করার উপায়