Coronavirus (করোনাভাইরাস) আন্তর্জাতিক

মোবাইল থেকেও করোনা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক ; বিশ্বজুড়ে থামছে না করোনার সংক্রমণ। কোথাও মৃত্যু কমে আবার বাড়ে। এমন কঠিন পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাস সম্পর্কিত এক নতুন তথ্য উপস্থাপন করলেন একদল চিকিৎসক।

ভারতের রায়পুর এইমস-এর বিশিষ্ট চিকিৎসকেরা জানাচ্ছেন, দিন যতই যাচ্ছে ততই চরিত্র বদল করে ভারতে ভয়ঙ্কর রুপ ধারণ করছে করোনা। এই অবস্থায় মোবাইল ফোন থেকেও করোনা সংক্রামিত হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে।

এই কথা প্রথমে শুনলে আপনার মনে হতেই পারে এটা আবার কখনও হয় নাকি? তবে এমনটিই হচ্ছে। আর তা এইমসের পক্ষ থেকে প্রকাশিত একটি জার্নালে তুলে ধরেছেন বিশেষজ্ঞরা।

ওই জার্নালে প্রকাশিত তথ্যে জানা গেছে, মোবাইল ফোন ব্যবহারের মাধ্যমে সবথেকে বেশি করোনা সংক্রামিত হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে। কারন, শুধু ঘরেই নয়, হাসপাতালেও চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা ব্যবহার করচ্ছেন মোবাইল ফোন।


মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সবসময় আদান প্রদান করা হচ্ছে মেডিকেল বুলেটিন। এছাড়াও বাড়ি বা প্রিয়জনদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে কোভিড হাসপাতালগুলোতে কর্মরত চিকিৎসক ও নার্সদের একমাত্র ভরসা মোবাইল।

তবে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, নিজেদের অজান্তে এই মোবাইল ফোনই ডেকে আনছে সমূহ বিপদ। কারন, ফোনের মধ্যে লুকিয়ে রয়েছে অসংখ্য জীবাণু। যা খালি চোখে দেখা যায় না।

এতে করে অদৃশ্য এই জীবাণুর দ্বারাও করোনা আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বা মারণ ব্যাধির জীবাণু ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। যদিও এই বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) আগেই সর্তক করেছিলো। ফল হিসেবে কোভিড হাসপাতালগুলোতে ডাক্তার, নার্স এবং স্বাস্থ্য কর্মীদের মোবাইল ফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক বার্তা দিয়েছিলো।

তবে ‘হু’য়ের আগাম সর্তকবার্তা যে খুব একটা ফলপ্রসূ হয়নি তা বলাই বাহুল্য। আর এই অবস্থায় করোনা আক্রান্ত রোগী এবং হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা করাতে আসা রোগী, ডাক্তার এবং নার্সদের মোবাইল ফোনের ব্যবহার সংক্রমণ বাড়িয়ে দেওয়ার আশঙ্কাকে আরও দ্বিগুন করে তুলছে।

এইমস বিশেষজ্ঞ মহলের মতে, মোবাইল ফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে অবশ্যই মেনে চলতে হবে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সবরকম সতর্কতাবিধি। প্রতিবার ফোন ব্যবহারের পর হাত হ্যান্ড ওয়াশ বা স্যানিটাইজার দিয়ে পরিস্কার করা উচিত। এছাড়াও ফোনকেও জীবাণুমুক্ত করা প্রয়োজন।

যাদের বাচ্চা আছে, এই এক গেইমে আপনার বাচ্চার লেখাপড়া শুরু এবং শেষ হবে খারাপ গেইমের প্রতি আসক্তিও।ডাউনলোডকরুন : http://bit.ly/2FQWuTP

আরও পড়ুন

লাখে ৩০ জন করোনা আক্রান্ত হলেই ওই এলাকা ‘রেড’ জোনে

mdhmajor

বন্দি ঘরে কেমন আছ, অনেক দিন তোমার বুকে ঘুমাই না : করোনা আক্রান্ত বাবাকে মেয়ে

Sabina Sami

সর্দি-জ্বরে মারা গেলেন সীতাকুণ্ড থানার এসআই একরাম

mdhmajor

রেড জোনে করোনা প্রতিরোধে ‘যে কোনো ব্যবস্থা’ নেবে পুলিশ

Sabina Sami

আক্রান্তের সংখ্যায় স্পেনকে টপকে গেল ভারত

Sabina Sami

ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশীদ করোনায় আক্রান্ত

mdhmajor