Views: 57

ক্রিকেট (Cricket) খেলাধুলা

রাজ্জাক-নাফীসের অবসর নিয়ে সাকিবের যে স্ট্যাটাস ভাইরাল

স্পোর্টস ডেস্ক : অনেকটা উপেক্ষিত হয়েই ক্রিকেটকে বিদায় বললেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের দুই স্তম্ভ আবদুর রাজ্জাক ও শাহরিয়ার নাফীস। আবদুর রাজ্জাক তো একটা সময় দলের বোলিং নিউক্লিয়াস ছিলেন। তাকে ছাড়া একাদশই পূর্ণতা পেত না। নাফীসও ওপেনিং করেছেন দাপটের সঙ্গে। কিন্তু একটা সময় তারা দল থেকে বাদ পড়ে যান। আর ফিরে আসতে পারেননি।

বাংলাদেশের ক্রিকেটের স্বর্ণযুগের শুরুর দিককার তারকা তারা। তাদের অবদানকে কী করে খাটো করে দেখেন দেশসেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। তাই সাবেক দুই সতীর্থের বিদায়ে তাদের কীর্তিকে সামনে এনে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। যেটি ভাইরাল হয়ে গেছে।

সাকিব বাংলা ও ইংরেজিতে স্ট্যাটাসটি দিয়েছেন তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেইজে। সেখানে তিনি এই দুই খেলোয়ারের একটি ছবি দিয়ে লিজেন্ট ট্যাটু এঁকে দিয়েছেন। সাকিব লিখেছেন-

‘Abdur Razzak and Shahriar Nafees are two of the many stars by whom the golden-era of Bangladesh cricket had begun. Their valiant efforts towards Bangladesh cricket development in and out of the pitch will always be remembered by the people of our country. Abdur Razzak being the first among Bangladeshi bowlers to gain 200 wickets and Nafees becoming the first batsman of Bangladesh to reach the 1000 runs-mark are a few of the many landmarks they have touched as Bangladeshi cricketers. I want to thank them for their wonderful careers, their achievements, and most of all being idols for the next generation cricketers.’

অর্থাৎ- বাংলাদেশ ক্রিকেটের সোনালী যুগের হাতেখড়ি যাদের মাধ্যমে হয় তাদের মধ্যে আব্দুর রাজ্জাক ও শাহরিয়ার নাফীস অন্যতম দুটি নাম। আমাদের ক্রিকেটের অগ্রযাত্রায় তাদের অবদান অতুলনীয়। তাদের অনেক অর্জনের মধ্যে রাজ্জাক ভাইয়ের ২০০ উইকেট ও নাফীস ভাইয়ের ১০০০ রানের মাইলফলক ছিল বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের মধ্যে প্রথম। আমি তাদের সুন্দর ক্যারিয়ার, দুর্দান্ত অর্জন এবং সর্বোপরি আগাম ক্রিকেটারদের আইডল হিসেবে প্রেরণা দেওয়ার জন্য সবার পক্ষ থেকে জানাই আন্তরিক অভিবাদন।

১৮ ঘণ্টা আগে দেওয়া স্ট্যাটাসটি রোববার বিকাল সাড়ে ৩ টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত শেয়ার করেছেন ৭৭৮ জন। লাইক পড়েছে ১ লাখ ৩৯ হাজার। মন্তব্য করেছেন ৩ হাজার ২শ’ ক্রিকেট অনুরাগী।

গত বছর ১৬ মার্চে রাজ্জাক খেলেছেন ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ। কাল রাজ্জাক বলেন, ‘ঘোরের মধ্যে আছি এখনও। আমার মধ্যে আবেগ খুব কঠিনভাবে কাজ করছে।’ প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে দেশের মধ্যে সর্বোচ্চ ৬৩৪ উইকেট রাজ্জাকের।

ইনিংসে পাঁচ উইকেট ৪১ বার, ম্যাচে ১০ উইকেট ১১ বার, সবই রেকর্ড। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে তার ৪১২ উইকেট দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ, ১৭ রানে সাত উইকেট দেশের হয়ে সেরা বোলিং কীর্তি।

এদিকে ক্যারিয়ারের সারমর্ম ও সাবেক হওয়ার অনুভূতি নিয়ে নাফীস বলেন, ‘আমি সব সময় সব সিদ্ধান্ত ভেবেচিন্তে নিয়েছি, পরিষ্কার করে। এটাই সঠিক সময়। কারণ খেলে যতটুকু অবদান রাখতে পারব তার চেয়ে বেশি এখন পারব। এজন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া কঠিন হয়নি। আমার সবচেয়ে বড় পাওয়া বাংলাদেশের মানুষের ভালোবাসা।’ ২৪ টেস্টে নাফীসের রান ১২৬৭, ৭৫ ওয়ানডেতে চার সেঞ্চুরিতে করেছেন ২২০১ রান। এছাড়া একটি মাত্র টি ২০ খেলে করেন ২৫ রান।

Share:



আরও পড়ুন

২০ দল নিয়ে বিশ্বকাপ আয়োজনের পরিকল্পনা আইসিসির

Saiful Islam

রিয়াল ছাড়ছেন জিদান

Saiful Islam

মায়ের চাওয়া আগামী মৌসুমেই জুভেন্টাস ছাড়বেন রোনালদো

Saiful Islam

ঢাকায় থেকে একবারের জন্যও বোনের বিয়েতে যেতে পারেননি মোস্তাফিজ, মা-বাবার মন খারাপ

rony

আবারও তিনে ব্যাটিং করবেন সাকিব

Shamim Reza

প্রিয়জনদের সুরক্ষায় ঘরে ঈদ উদযাপনের ডাক ক্রিকেটারদের

mdhmajor