খুলনা বিভাগীয় সংবাদ

সাতক্ষীরার ‘বাঘ বিধবা’দের কথা

জুমবাংলা ডেস্ক : সুন্দরবনের বাঘের হামলায় প্রাণ হারানো ব্যক্তিদের স্ত্রীকে ডাইনি অপবাদ দেয়া হয়৷ এমন অনেক ‘বাঘ বিধবা’র সঙ্গে মিশতে চান না গ্রামবাসীরা৷

ডাইনি অপবাদ
স্বামীর ছবির সঙ্গে মোসাম্মৎ রশিদা৷ সুন্দরবনে মধু সংগ্রহ করতে গিয়ে বাঘের হামলায় প্রাণ হারিয়েছিলেন তাঁর স্বামী৷ এই মৃত্যুর জন্য রশিদাকে দায়ী করেন গ্রামবাসীরা৷ এছাড়া তাঁকে ডাইনি অপবাদ দিয়ে তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক রাখেন না অনেকে৷ এমনকি তাঁর দুই ছেলেও তাঁকে ছেড়ে গেছেন৷

রশিদা আশ্চর্য নন
‘‘আমার ছেলেরা আমাকে বলেছে, আমি এক হতভাগী ডাইনি,’’ এএফপিকে বলছিলেন রশিদা৷ অবশ্য এতে তিনি আশ্চর্য হননি৷ কারণ, ‘‘তারাতো এই সমাজেরই অংশ,’’ চোখের পানি মুছতে মুছতে বলছিলেন তিনি৷ রশিদা থাকেন সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা গ্রামে৷ সুন্দরবন লাগোয়া এই গ্রামে অনেক মধু সংগ্রাহকের বাস৷

মাথায় ছাদও নেই
এটি রশিদার বাড়ি৷ বাড়ির ঘূর্ণিঝড়ে উড়ে যাওয়া ছাদ এখনও ঠিক করা সম্ভব হয়নি৷ রশিদার অভিযোগ, কোনো প্রতিবেশী, কিংবা সরকারের কেউ তাঁর সাহায্যে এগিয়ে আসেননি৷ অথচ অন্যদের ঠিকই সাহায্য করা হয়েছে বলে দাবি তাঁর৷ তবে সরকারি কর্মকর্তারা রশিদার এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন৷

কথা বলা বারণ
এএফপি যখন রশিদার বাড়িতে যায় তখন তার পাশেই নিজের বাড়ির ছাদ ঠিক করছিলেন মোহাম্মদ হোসেন৷ পরিবারের কল্যাণের কথা চিন্তা করে তাঁর স্ত্রী তাঁকে রশিদার সঙ্গে কথা বলতে মানা করেছেন বলে এএফপির কাছে স্বীকার করেন হোসেন৷

নিহতের সংখ্যা
রশিদার মতো ‘বাঘ বিধবা’দের কল্যাণে কাজ করে লেডার্স বাংলাদেশ৷ তাদের এক হিসেব বলছে, ২০০১ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত ৫০টি গ্রামে বাঘের হামলায় অন্তত ৫১৯ জন পুরুষ প্রাণ হারিয়েছেন৷

দক্ষিণপশ্চিমে বেশি
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাঘ বিশেষজ্ঞ মনিরুল খান জানান, মধু সংগ্রাহকরা সুন্দরবনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে মধু সংগ্রহ করতে বেশি পছন্দ করেন৷ অথচ সেখানেই বাঘের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি৷

পরিবর্তন আসছে, তবে…
লেডার্স বাংলাদেশের প্রধান মোহন কুমার মন্ডল জানান, তাঁরা রশিদার মতো বাঘ বিধবাদের কল্যাণে কাজ করছেন৷ তিনি বলেন, এই বিধবাদের প্রতি মানুষের মনোভাবে পরিবর্তন আসছে, তবে খুব ধীরে৷ তরুণ আর শিক্ষিত গ্রামবাসীরা বিধবাদের নিয়ে কম আশঙ্কিত বলেও জানান তিনি৷

আরেক বিধবা
তাঁর নাম রিজিয়া খাতুন৷ ১৫ বছর আগে তাঁর স্বামীও মধু সংগ্রহ করতে গিয়ে বাঘের হামলায় প্রাণ হারান৷ গ্রামবাসীদের সহায়তা না পেলেও তাঁর এক আত্মীয় তাঁকে গোপনে সাহায্য-সহযোগিতা করে বলে জানান তিনি৷ সূত্র : ডয়চে ভেলে

যাদের বাচ্চা আছে, এই এক গেইমে আপনার বাচ্চার লেখাপড়া শুরু এবং শেষ হবে খারাপ গেইমের প্রতি আসক্তিও। ডাউনলোডকরুন : http://bit.ly/2FQWuTP

আরও পড়ুন

হঠাৎ কালবৈশাখী ঝড়ে কিশোরীর মৃত্যু

Saiful Islam

প্রধানমন্ত্রীর পদক্ষেপে মানুষ নিরাপদ থাকার চেষ্টা করছে : তোফায়েল

Saiful Islam

করোনা আতঙ্কে জানাজা ছাড়াই দাফন!

Saiful Islam

মানিকগঞ্জে লকডাউনে থাকা ৫ শতাধিক অসহায়কে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

Saiful Islam

কৃষক লীগ নেতার দোকান থেকে হতদরিদ্রের ১৬ বস্তা চাল উদ্ধার

Saiful Islam

করোনা আতঙ্কের মধ্যে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

Saiful Islam