খুলনা বিভাগীয় সংবাদ

সাতক্ষীরায় লবণ বেশি দামে বিক্রি ও মজুদের অপরাধে আটক ২৫

জুমবাংলা ডেস্ক : সারা দেশের ন্যায় গুজব ছড়িয়ে সাতক্ষীরায় লবণের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি দেখিয়ে বেশি দামে বিক্রি এবং মজুদের অপরাধে সাতক্ষীরায় মোট ২৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এর মধ্যে ৬ ব্যবসায়ীকে জেল এবং অপর ১৬ জনকে ৭১ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

মঙ্গলবার রাতে শহরের পুরাতন সাতক্ষীরা, সুলতানপুর বড় বাজার, মিল বাজার ও সদর উপজেলার ব্রম্মরাজপুর বাজার, তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা বাজার, মির্জাপুর বাজার, কুমিরা বাজার ও দেবহাটা উপজেলার বহেরা বাজার থেকে তাদেরকে আটক করে নগদ অর্থ দণ্ডসহ বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদাণ করা হয়।

কৃত্রিম সংকট ও মজুদ করার উদ্দেশ্যে এবং সরকার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে বেশি দামে লবণ বিক্রির অভিযোগে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বিভিন্ন অঞ্চলে অভিযান চালিয়ে ৮ জনকে আটক করা হয়।

এদের মধ্যে ব্রম্মরাজপুর উমরা পাড়া এলাকার ইমাম হোসেন, মেহেদি হাসান, ইয়াছিন মোড়ল, পুরাতন সাতক্ষীরার অকার, মোস্তাফিজু রহমান ও মিজানুর রহমানসহ ৫ জনকে ভ্রাম্যমান আদালত ১ মাসের সাজা প্রদান করে। বাকীদেরকে ২৩ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

রাত ৯ টার দিকে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক সদর উপজেলা নির্বাহি অফিসার দেবাশীষ চৌধুরি ও সদর ভুমি কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান উপরোক্ত অর্থদণ্ডসহ সাজা প্রদান করেন।

এদিকে তালা উপজেলার মির্জাপুর বাজার ও পাটকেলঘাটা বাজারে লবণের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি দেখিয়ে বেশি দামে বিক্রি এবং মজুদের উদ্দেশ্যে ক্রয়ের অপরাধে ১০ জনকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালত। এর মধ্যে মজুদের উদ্দেশ্যে ১০০ প্যাকেট লবন ক্রয়ের অপরাধে শাকদাহ পিএস দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক বাবলু হোসেনকে ১০ দিনের জেল প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া অতিরিক্ত দামে লবন বিক্রির অভিযোগে পাটকেলঘাটা বাজারের দোকানদার অমলসাধুকে ৫ হাজার টাকা,লতিফ কারিগরকে ৫ হাজার টাকা, প্রকাশ সাধুকে ২ হাজার, বিকাশ সাধুকে ৫ হাজার, মির্জাপুর বাজারের রাজিব ঘোষকে ৫ হাজার ও অরুন সাধুকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া মজুদের উদ্দেশ্যে অতিরিক্ত লবন ক্রয়ের অপরাধে কুমিরা বাজারের ফারুক হোসেনকে ১ হাজার ও আবুল হোসেনকে ১০ হাজার এবং পাটকেলঘাটা বাজারের শেখ খোরশেদুর রহমানকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমান আদালত। রাত ১০ টার দিকে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক তালা উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) খন্দকার রবিউল ইসলাম, পাটকেলঘাটা থানার তদন্ত কর্মকর্তা বিল্লাহ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে একই অপরাধে দেবহাটা থানা পুলিশ বহেরা বাজারে অভিযান চালিয়ে আক্তারুজ্জামান, রাফিকুল ইসলাম ও ইব্রাহিম নামে ৩ জনকে আটক করে।

এদিকে সাতক্ষীরা জেলায় লবণের দাম বেড়ে যাওয়ার গুজব ছড়ানোর কারণে বিকেল থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় দেখা যায় শহরের সুলতানপুর বড়বাজারসহ বিভিন্ন উপজেলা সদরসহ গ্রাম-গঞ্জের বিভিন্ন ছোট বড় মুদির দোকানে।

এ ঘটনার পরপরি রাতে মাঠে নামে জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল। তিনি নিজেই হ্যান্ড মাইক হাতে নিয়ে গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানান শহরবাসীকে। এছাড়া একই সাথে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে জেলা শহরে মাইকিং করে গুজবে কান না দেওয়ার জন্য সাতক্ষীরাবাসীকে আহ্বান জানান এবং গুজব সৃষ্টি করে লবণের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টিকারিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে হুঁশিয়ারি জারি করা হয়।

একইভাবে জেলা পুলিশের ফেসবুক পেইজ থেকে লবণের সংকট গুজবে কান না দেওয়ার জন্য সাতক্ষীরাবাসীকে আহ্বান জানান পুলিশ সুপার মুস্তাফিজুর রহমান।


জুমবাংলানিউজ/এসআই




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


সর্বশেষ সংবাদ