জাতীয় রাজনীতি স্লাইডার

স্বাধীনতাবিরোধী ও তাদের বংশধরদের নির্বাচনের বাইরে রাখতে হবে: খালিদ মাহমুদ

জুমবাংলা ডেস্ক: রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, স্বাধীনতা বিরোধী রাজাকার, আল-বদর ও তাদের বংশধরদের আইন করে নির্বাচনের বাইরে রাখতে হবে । খবর বাসসের।

এর আগে চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাব উত্থাপন করলে সরকারি দলের সদস্য আ স ম ফিরোজ তা সমর্থন করেন।

গত ৯ জানুয়ারি একাদশ জাতীয় সংসদের ষষ্ঠ ও বছরের প্রথম অধিবেশনের শুরুর দিন সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ সংসদে ভাষণ দেন।

রাষ্ট্রপতির ভাষণে আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আজ প্রথম দিনে নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী সরকারি দলের সদস্য উপাধাক্ষ্য আবদুস শহীদ, মো. হাবিবে মিল্লাত, আনোয়ারুল আবদীন খান, সাইফুজ্জামান, শামসুন্নাহার, বেগম নার্গিস রহমান, জিন্নাতুল বাকিয়া, বেগম জাকিয়া তাবাসুম, আলোচনায় অংশ নেন।

আলোচনায় অংশ নিয়ে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী রাজাকার, আল-বদর ও তাদের বংশধরদের আইন করে নির্বাচনের বাইরে রাখতে হবে। তাহলেই নির্বাচন অবাধ ও নিরপেক্ষ হতে পারে এবং লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত হতে পারে।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া এতিমের টাকা আত্মসাৎ করে আদালত কর্তৃক অপরাধী সাব্যস্থ হয়ে জেলখানায় আছেন। অথচ বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা ওই অপরাধীর ছবি পোস্টারে ব্যবহার করে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছে। একজন অপরাধীকে সামনে রেখে নির্বাচনে প্রতিদ্ব›িদ্ধতা করে প্রমান করেছে তারা দেশে আইনের শাসন চায় না।

বর্তমান সরকারের আমলে প্রতিমন্ত্রী তার মন্ত্রণালয়ের উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মাত্র ৭টি ড্রেজার দিয়ে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের যাত্রা শুরু করেছিলেন। ২০০৮ সাল পর্যন্ত ড্রেজারের সংখ্যা ৭টিই ছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বর্তমানে এই মন্ত্রণালয়ের ড্রেজারের সংখ্যা ১শ’টি ছাড়িয়ে গেছে।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার ১০ হাজার কিলোমিটার নৌপথ সচল করতে দীর্ঘমেয়াদী, মধ্য মেয়াদী ও স্বল্পমেয়াদী প্রকল্প গ্রহণ করে তা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে।

আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের অন্যান্য সদস্যরা বলেন, রাষ্ট্রপতি সরকারের আমলের বিষ্ময়কর উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেছেন। এর পাশাপাশি ভবিষ্যৎ সমৃদ্ধ বাংলাদেশের বিষয়ে সবিস্তারে তুলে ধরেছেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে দেশের মানুষের মধ্যে স্বাচ্ছন্দ এসেছে। দেশে কোন অভাব নেই, দারিদ্র্য দূর হয়েছে, মানুষের মধ্যে হাহাকার নেই। দেশের মানুষ কোথাও অনাহারে নেই। দেশ সন্ত্রাস, দুর্নীতি মুক্ত হয়েছে। প্রতিটি ক্ষেত্রে অভাবনীয় উন্নয়ন হয়েছে।


জুমবাংলানিউজ/এইচএম




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


rocket