in

১৭ বছর ধরে মাটির গর্তে শেকলবন্দি সেই রবিউলের চিকিৎসা করাবে পুলিশ

জুমবাংলা ডেস্ক: ১৭ বছর ধরে মাটির গর্তে শেকলবন্দি থাকা সেই রবিউলের চিকিৎসার খরচ বহন করবে পুলিশ। ইউএনওর পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে পাঁচ হাজার টাকা। রবিউলকে নিয়ে গতকাল ১৭ বছর মাটির গর্তে শিকলবন্দি রবিউল শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। এর পর থেকে বিষয়টি নজরে আসে প্রশাসনের। এর আগে স্থানীয় এক ব্যক্তি ফেসবুকে রবিউলের ছবি পোস্ট করলে বিষয়টি গণমাধ্যমকর্মীদের নজরে আসে।

ফরিদপুরে বোয়ালমারী উপজেলার ময়না ইউনিয়নের ছয় নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম চরবর্ণি গ্রামের ভ্যানচালক মো. নুরুল মোল্লার বড় ছেলে মো. রবিউল মোল্লা (৩৫)। তিন ভাইয়ের মধ্যে রবিউল সংসারের বড় সন্তান।

আজ শনিবার বিকেল ৩টায় ফরিদপুর পুলিশ সুপারের নির্দেশে বোয়ালমারী থানার ওসি মোহাম্মদ নুরুল আলম রবিউলের বাড়িতে পরিদর্শনে যান। এ সময় পুলিশের পক্ষ থেকে রবিউলের চিকিৎসার সম্পূর্ণ খরচ বহন করা হবে বলে জানান।

বাড়ির চারচালা পশ্চিম পোতায় একটি টিনের ঘরে কোমরে শিকল লাগানো রবিউল। প্রায় ১১ ফুট ব্যাসের ও ৬ ফুট গভীর গোলাকার গভীর মাটির গর্তে হাত দিয়ে মাটি খুঁড়ছে। গত ১৭ বছরের শিকলবন্দি জীবনে ঘরটির মাটির মেঝে হাত দিয়ে খুঁড়ে খুঁড়ে রবিউল নিজেই তৈরি করেছেন নিজের থাকার অন্য জগত।

বোয়ালমারী থানার ওসি মোহাম্মদ নুরুল আলম বলেন, আমি ওই বাড়িতে উপস্থিত হয়ে ভারসাম্যহীন রবিউলের পরিবারের সদস্যদের সন্ধ্যায় থানায় আসতে বলেছি। তার পরিবারের সদস্যরা থানায় আসলে আলোচনাসাপেক্ষে তাকে পাবনা মানসিক হাসপাতালে পাঠাব। তার চিকিৎসার যাবতীয় ব্যয়ভার পুলিশ বহন করবে।


Fiver best placte to make money from home