উইগুরদের উপর ‘গণহত্যা’ নিয়ে আবার সরব যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: শিনজিয়াং অঞ্চলে উইগুর ও অন্য মুসলিমদের সঙ্গে চীনের আচরণকে আবারো ‘গণহত্যা’ হিসেবে উল্লেখ করেছে যুক্তরাষ্ট্র৷ চীন ছাড়াও মিয়ানমার, ইরিত্রিয়া, ইথিওপিয়া, সাউথ সুদানের বিরুদ্ধে গণহত্যা ও জাতিগত নিধনের অভিযোগ আনা হয়েছে৷ খবর ডয়চে ভেলে’র।

উইগুরদের বন্দি করে রাখা, জোরপূর্বক শ্রম আদায়সহ নির্যাতন ও নিষ্ঠুরতার অভিযোগে চীনের বিরুদ্ধে ট্রাম্প প্রশাসনের সময় থেকেই সরব যুক্তরাষ্ট্র৷ এই আচরণকে গণহত্যা, মানবতাবিরোধী অপরাধ হিসেবে অভিহিত করে আসছে দেশটি৷ বরাবরই তা অস্বীকার করে আসছে চীন৷

সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর কংগ্রেসের কাছে জমা দেওয়া বার্ষিক প্রতিবেদনেও বলেছে চীন শিনজিয়াং প্রদেশে উইগুরসহ অন্য মুসলিম ও নৃগোষ্ঠী সংখ্যালঘু সম্প্রদায়গুলোর উপর গণহত্যা চালাচ্ছে৷ বন্দি করা, নির্যাতন চালানো, জোরপূর্বক বন্ধ্যাত্বকরণ, নিষ্ঠুরতাসহ নানা মানবতাবিরোধী অপরাধ চালিয়ে যাচ্ছে৷

শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র আগেই শিনঝিয়াং এর বেশ কয়েকটি কোম্পানিকে কালো তালিকাভুক্ত করেছিল৷ গত ৯ জুলাই সেখানে আরো ১৪টি কোম্পানির নাম যুক্ত করা হয়েছে৷ এসব প্রতিষ্ঠান এখন থেকে কোন মার্কিন বিনিয়োগ পাবে না৷

বিশেষজ্ঞ ও মানবাধিকার সংস্থাগুলোর তথ্য অনুযায়ী, ‘পুনঃশিক্ষা ক্যাম্পের’ নামে শিনজিয়াংয়ে প্রায় ১০ লাখ উইগুর, কাজাখ, হুই ও অন্যান্য মুসলিম সংখ্যালঘুদের আটক করে রেখেছে চীন৷ বেইজিংয়ের অভিযোগ উইগুররা বিচ্ছিন্নতাকামী ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমে জড়িত৷

এদিকে সোমবারের মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রতিবেদনে চীন ছাড়াও মিয়ানমার, ইরিত্রিয়া, ইথিওপিয়া ও সাউথ সুদানের বিরুদ্ধে গণহত্যা ও জাতিগত নিধন প্রচেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে৷ এক্ষেত্রে দেশগুলোর বিরুদ্ধে বাইডেন প্রশাসন আরো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে৷

আজকের জনপ্রিয়:
>> আয়ু কমে যাওয়ার ৭ কারণ
>> সন্তানদের যে আমলের অভ্যাস করানো জরুরি
>> ছেলেদের যে বিষয়গুলো মেয়েরা সবার আগে খেয়াল করে


Share:





জুমবাংলানিউজ/একেএ