Views: 84

আন্তর্জাতিক

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ভারতকে যে আহ্বান জানাল পাকিস্তান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতনিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বিক্ষোভ ঠেকাতে ওই অঞ্চলে দীর্ঘদিন ধরে নিষেধাজ্ঞা এবং বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে মোদি সরকার।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের পরিস্থিতিতে অঞ্চলটির সেই অবস্থার পরিবর্তন চায় পাকিস্তান। যেজন্য ভারতকে কাশ্মীর থেকে নিষেধাজ্ঞা তোলার আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

ইসলামাবাদ বলছে, চলমান করোনাভাইরাসের জন্য সৃষ্ট স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জরুরি অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে কাশ্মীরে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা এবং বিধি-নিষেধ তুলে নিতে ভারতকে আহ্বান জানানো হয়েছে।

রোববার ‘কোভিড-১৯ মোকাবিলায় করণীয় ও গৃহীত পদক্ষেপ’ নিয়ে সার্কভুক্ত আট দেশের শীর্ষ নেতার নজিরবিহীন ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়।

সেখানে পাকিস্তানের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. জাফর মির্জা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রতি এ আহ্বান জানান।

এর ব্যাখ্যা ডা. জাফর বলেন, ‘ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে নভেল করোনার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। এতে সেখানে জনমণে উদ্বেগ সৃষ্টি হয়েছে। আর্ন্তজাতিক গণমাধ্যমগুলোতে সে খবর প্রকাশ হয়েছে। এ অবস্থায় কাশ্মীরের ওপর আরোপিত নয়াদিল্লির সব নিষেধাজ্ঞা এবং বিধি-নিষেধ জরুরিভিত্তিতে তুলে নেয়া প্রয়োজন।’

পাশাপাশি করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সার্কভুক্ত দেশগুলোকে আঞ্চলিক পদ্ধতি গঠনের প্রস্তাবও দেন ডা.জাফর মির্জা।

এদিকে ডা.জাফর মির্জার এই আহ্বান ভালোভাবে নেয়নি নয়াদিল্লি। ভিডিও কনফারেন্সের সুযোগ পেয়ে পাকিস্তানের এই মুখপাত্র অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে কাশ্মীরের প্রসঙ্গ তুলেছেন বলে মন্তব্য নয়াদিল্লির।

ভারতের সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে বিভিন্ন ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সোমবার দাবি করেছে, করোনা পরিস্থিতিকে পুঁজি করে মানবিক একটি বিষয়কে পাকিস্তান রাজনীতিকরণের চেষ্টা করেছে। পাশাপাশি শীর্ষ সম্মেলনে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. জাফর মির্জাকে পাঠানোর বিষয় নিয়ে সমালোচনা করেছে ভারত।

ভারত বলছে, আরো উচ্চপর্যায়ের কেউ না এসে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীকে কনফারেন্সে পাঠিয়ে পাকিস্তান এ সম্মেলনকে গুরুত্বের সঙ্গে গ্রহণ করে নি।

উল্লেখ্য, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আহ্বানে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে হওয়া সার্কভুক্ত দেশগুলোর এই ভিডিও কনফারেন্সে মোদি ছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি, নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলি, ভুটানের প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগে, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সলিহ, শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোটাবে রাজাপাকসে এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের স্বাস্থ্য উপদেষ্টা ডা.জাফর মির্জা।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৫ আগস্ট কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা একতরফা ভাবে বাতিল করে দেয় ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। সে থেকে জম্মু ও কাশ্মীরের ওপর নিষেধাজ্ঞাও চাপিয়ে দেয়া হয়। তবে এ বছরের শুরু থেকে আন্তর্জাতিক চাপের মুখে ভারত কাশ্মীরের ওপর আরোপিত কিছু কিছু নিষেধাজ্ঞা শিথিল করতে শুরু করেছে।

তথ্যসূত্র : কাশ্মীর মিডিয়া সার্ভিস

Share:



আরও পড়ুন

কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে যমজ দুই ভাইয়ের মৃত্যু

Saiful Islam

হামাসের ছোঁড়া শত শত রকেট আকাশেই নিষ্ক্রিয় করছে `আয়রন ডোম’

mdhmajor

ক্ষয়ক্ষতি মেরামতের জন্য গাজাকে ৫০০ মিলিয়ন ডলার দেবে মিসর

Saiful Islam

যে কারণে গঙ্গায় ভাসছে মরদেহ

Saiful Islam

ইসরায়েলে ফের লেবানন থেকে রকেট হামলা

azad

প্রবাসী আয়ে এবার সপ্তম অবস্থানে বাংলাদেশ

Shamim Reza